শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪

|

আষাঢ় ৭ ১৪৩১

Advertisement
Narayanganj Post :: নারায়ণগঞ্জ পোস্ট

সোনারগাঁয়ে মাদক ব্যবসা নিয়ন্ত্রনকে কেন্দ্র করে যুবককে কুপিয়ে হত্যা 

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

প্রকাশিত: ০০:১৪, ১০ জুন ২০২৪

সোনারগাঁয়ে মাদক ব্যবসা নিয়ন্ত্রনকে কেন্দ্র করে যুবককে কুপিয়ে হত্যা 

প্রতীকী ছবি

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে মাদক ব্যবসা নিয়ন্ত্রন ও পাওনা টাকাকে কেন্দ্র করে রাব্বী (২২) নামের এক যুবককে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে। 

রোববার (৯ জুন) রাত ১০টার দিকে মোগরাপাড়া ইউনিয়নের বাড়ি মজলিস গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহতের লাশ সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রাখা হয়েছে। নিহত রাব্বী ওই এলাকার সানাউল্লাহ বেপারীর বাড়ির ভাড়াটিয়া আক্কাস আলীর ছেলে। হত্যাকান্ডের ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন সোনারগাঁ থানার পরিদর্শক তদন্ত মো. মহসিন। এ ঘটনায় শাহ আলম নামের আরো একজন আহত হয়েছেন। 

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, উপজেলার মোগরাপাড়া ইউনিয়নের বাড়ি মজলিস এলাকা দীর্ঘদিন ধরে মাদক ব্যবসায়ী ও বিভিন্ন অপরাধীদের আখড়া হিসেবে পরিচিত। সেখানে মাদক বিক্রির থেকে শুরু করে বিভিন্ন ধরনের অপরাধমূলক কর্মকান্ড সংঘটিত হয়ে থাকে। রোববার রাত ১০টার দিকে শাহ আলম নামের পুলিশের সোর্স নিহত রাব্বীকে ডেকে নিয়ে যায় বাড়ি মজলিস এলাকায়। পরে আগে থেকে উৎ পেতে থাকা সন্ত্রাসী ও চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী অন্তুর নেতৃত্বে মিন্টুসহ ৫-৬জনের একটি দল রাব্বী ও শাহ আলমের ওপর হামলা চালিয়ে কুপিয়ে আহত করে পালিয়ে যায়। ঘটনার পর স্থানীয়রা আহতদের সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে রাব্বীকে মৃত ঘোষনা করে। এছাড়াও শাহ আলমকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। 

নিহতের মা শাহানারা বেগম জানান, পুলিশের সোর্স শাহ আলম তার ছেলে রাব্বীকে ডেকে নিয়ে যায়। পরবর্তীতে তাকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে তাদের জানানো হয়। হাসপাতালে এসে রাব্বীর লাশ দেখতে পান তারা। তার মায়ের দাবি পরিকল্পিতভাবে মাদক ব্যবসায়ীরা তার ছেলেকে হত্যা করেছে। এ হত্যাকান্ডে জড়িতদের গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন। 

আহত পুলিশের সোর্স শাহ আলম বলেন, নিহত রাব্বী ও সে একে অপরের বন্ধু। রাতে দুজন মিলে বাড়ি মজলিস এলাকায় গেলে র‌্যাবের ক্রসফায়ারে নিহত সন্ত্রাসী গিট্টু হৃদয়ের সহযোগী অন্তুর নেতৃত্বে মিন্টুসহ কয়েকজন তাদের কুপিয়ে আহত করে পালিয়ে যায়। হাসপাতালে নেওয়ার পর রাব্বী মারা যায়। 

একটি সূত্র জানায়, মাদক ব্যবসা নিয়ন্ত্রন নিয়ে অন্তু ও রাব্বীর মধ্যে কয়েকদিন ধরে দ্বন্ধ চলছে। গত কয়েক বছর ধরে রাব্বী মাদক ব্যবসায়ী অন্তুর সাথে মাদক ব্যবসায় জড়িয়ে পড়ে। মাদক বেচাকেনার সময় ১০ হাজার টাকা বকেয়া করে। পাওনা টাকা পরিশোধ করতে টালবাহানা করলে আফিয়া সিএমজি পাম্পের তাকে পেয়ে কুপিয়ে আহত করে। এ দ্বন্ধে এ হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটতে পারে। 

সোনারগাঁ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. মহসিন বলেন, হত্যাকান্ডের পর নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হবে। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন। হত্যাকান্ডের ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।