শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

|

মাঘ ১৯ ১৪২৯

Advertisement
Narayanganj Post :: নারায়ণগঞ্জ পোস্ট

সিদ্ধিরগঞ্জে ছিনতাইয়ের অভিযোগে তিনজন গ্রেফতার 

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

প্রকাশিত: ২৩:২৭, ২৩ জানুয়ারি ২০২৩

সিদ্ধিরগঞ্জে ছিনতাইয়ের অভিযোগে তিনজন গ্রেফতার 

গ্রেফতার

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে সংঘবদ্ধ ছিনতাইকারী চক্রের তিন সদস্যকে হাতেনাতে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ। 

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশের পরিদর্শক (অপারেশন) হাবিবুর রহমান। 

এর আগে গতকাল (২২ জানুয়ারি) রাতে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশের এসআই ইয়াউর রহমান আসামিদের গ্রেফতার করেন।

গ্রেফতার হওয়া ছিনতাইকারীরা হলেন, আব্দুল বাতেনের ছেলে জাকির (৪৫), বিএনপি নেতা মোহাম্মদ আলীর ছেলে মাসুম (২৮), একই  এলাকার মৃত ইসমাইলের ছেলে মনির (৪৮)।

মামলা সুত্রে জানা যায়, বাদী আজাদ হোসেন (৩৩) মোবাইল ব্যবসায়ী। তার কাছে পাওনা টাকা নিতে তার বাসায় আসেন আঃ রশিদ নামের আরেক ব্যবসায়ী৷ পড়ে বাদী পাওনাদারকে ৭ লক্ষ্য ৩৪ হাজার টাকা বুঝিয়ে  দেওয়ার পর তাকে এগিয়ে দেওয়ার জন্য আনুমানিক ১১টা ৪৫ মিনিটে গাড়িতে উঠিয়ে দেওয়ার জন্যে মিজমিজি বাতানপাড়া কবরস্থান রোডের জয়নাল মার্কেটের মোড়ে পৌঁছালে মামলায় উল্লেখ করা আসামিসহ অজ্ঞাত ৩/৪ জন সাথে সাথে ভুক্তভোগীর গাড়ির গতিরোধ করেন। পরে তাকে বেদর মারধর করে তার তাদের সঙ্গে থাকা ৭ লাখ ৩৪ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়। পরে ভুক্তভোগীদের হৈ-হুল্লোড়ের থানা পুলিশের টহলে থাকা টিম এবং স্থানীয় এলাকাবাসী ঘটনাস্থলে গিয়ে আসামিদের আটক করতে সক্ষম হলেও চতুর্থ আসামি রহমানের ছেলে রাজু (৩০) সহ বাকিরা দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন।

পড়ে আটককৃত আসামি জাকিরে পড়া প্যান্টের পকেট থেকে ২ লাখ এবং মাসুমের জ্যাকেট থেকে নগদ ১ লাখ টাকা উদ্ধার করেন পুলিশ। 

স্থানীয় এলাকাবাসীর সঙ্গে যোগাযোগ করে জানা যায়, উক্ত আসামিদের মধ্যে প্রথম আসামি জাকির এবং দ্বিতীয়জন মাসুম নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) ১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনোয়ার ইসলামের একনিষ্ঠ ঘনিষ্ঠ কর্মী। আনোয়ার ইসলাম কাউন্সিলর হওয়ার পরে থেকে এলাকায় বিভিন্ন অন্যায় অত্যাচার মূলক কর্মকান্ড করে আসছিল তারা। আসামি জাকিরের বিরুদ্ধে বিএনপির একাধিক মামলা রয়েছে থানায়। বাতানপাড়া ব্রিজে তার একটি রিকশার গ্যারেজ রয়েছে সেখানে মাদকের রমরমা কারবার এবং জুয়ার আসর বসানো হয় দিবারাত্রি। তার গ্যারেজে একাধিকবার পুলিশ এবং ডিবি অভিযানও পরিচালনা করেছিলেন।

অপর আসামি মনির সংরক্ষিত ১'২'৩' নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাকসুদা মোজাফফরের দেবর হন। দীর্ঘদিন যাবত সংঘবদ্ধভাবে মনিরসহ অপর আসামিরা ছিনতাই করে আসলেও ভয়ে মুখ খুলতেন না এখানকার বাসিন্দারা। যদি কেউ তাদের বিরুদ্ধে কথা বলার সাহস করতো তাদের উপর চালানো হতো অমানবিক অত্যাচার।

এ বিষয়ে কাউন্সিলর নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) ১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনোয়ার ইসলাম বলেন, জাকির ও মাসুম নামের কাউকে আমি চিনি না। আমার কোনো লোক না তারা।

গ্রেফতারের বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম মোস্তফা জানান, গ্রেফতারকৃত আসামিদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। তাদের আজ দুপুরে আদালতে প্রেরণ করা হয়। এবং বাকি আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।