রোববার, ০৩ মার্চ ২০২৪

|

ফাল্গুন ১৯ ১৪৩০

Advertisement
Narayanganj Post :: নারায়ণগঞ্জ পোস্ট

রূপগঞ্জে একজনকে গুলির চেষ্টার পর আরেকজনকে কুপিয়ে জখম

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

প্রকাশিত: ২২:৩৮, ১৩ জানুয়ারি ২০২৪

রূপগঞ্জে একজনকে গুলির চেষ্টার পর আরেকজনকে কুপিয়ে জখম

জখম

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে ফের বিদ্যুৎ গ্রুপ বেপরোয়া হয়ে উঠেছে।জুবায়ের হোসেন নামের এক যুবককে পিস্তল দিয়ে গুলি করে হত্যার চেষ্টার ঘটনার কয়েক মাস পরেই ইমন হোসেন খোকন মানিক নামের আরেক যুবককে কুপিয়ে জখম করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

শনিবার (১৩ জানুয়ারি ) গুরুতর আহত যুবক ইমন হোসেন খোকন মানিক বাদী হয়ে বিদ্যুৎ গ্রুপের সদস্যদের বিরুদ্ধে রূপগঞ্জ থানা একটি অভিযোগ করেছেন।

আহত যুবক ইমন হোসেন খোকন মানিক অভিযোগ করে জানান, উপজেলার গোলাকান্দাইল বাগমোর্চা ও নাগেরবাগ এলাকার বিদ্যুৎ গ্রুপের প্রধান বিদ্যুৎ, সাকিব, সবুজ, শামীম, রবিউল, আব্দুল্লাহ, মনির ও আকাশসহ এ বাহিনীর সদস্যরা চাঁদাবাজ, উশৃংখল, বেপরোয়া ও সন্ত্রাসী প্রকৃতির। 
২০২৩ সালের ১১ মে বিদ্যুৎ বাহিনীর সদস্যরা গোলাকান্দাইল নতুন বাজার এলাকার মাসুম বিল্লাহ নামে এক যুবককে কুপিয়ে জখম করে এবং জুবায়ের নামে অপর যুবককে গুলি করে হত্যার চেষ্টা চালায়। তখন গুরুতর আহত অবস্থায় মাসুম বিল্লাহ ও যুবক জুবায়েরকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ওই ঘটনায় গুলিবিদ্ধ জুবায়েরের মা বিউটি বেগম বাদী হয়ে বিদ্যুৎ গ্রুপের সদস্যদের বিরুদ্ধে রূপগঞ্জ থানা একটি মামলা দায়ের করেন। 

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে গত  ৯ জানুয়ারি দুপুরে গোলাকান্দাইল নতুন বাজার এলাকায় বিদ্যুৎ গ্রুপের সদস্যরা মাসুম বিল্লাহ, জুবায়ের ও ইমন হোসেন খোকন মানিকসহ তাদের বন্ধুদের ওপর ধারালো অস্ত্রে শস্ত্রে সজ্জিত হয়ে এবং পিস্তল উচিয়ে হামলা চালায়। 

এ ঘটনার পর গত (১১ জানুয়ারি) মাসুম বিল্লাহ ও জুবায়েরের বন্ধু ইমন হোসেন খোকন মানিক গার্মেন্টস থেকে কাজ শেষ করে বাড়ি ফেরার পথে নতুন বাজার এলাকায় পৌছলে বিদ্যুৎ গ্রুপের সদস্যরা তাকে কুপিয়ে জখন করে। পরে স্থানীয় লোকজন ইমন হোসেন খোকন মানিককে উদ্ধার করে স্থানীয় ইউ এস বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। এক পর্যায়ে হামলাকারীদের সঙ্গে স্থানীয় লোকজনের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। 

তবে এ বিষয়ে বিদ্যুৎ গ্রুপের প্রধান বিদ্যুৎতের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ অস্বীকার করেন।

এ ব্যাপারে ভূলতা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মুস্তাফিজুর রহমান বলেন, এ ধরনের ঘটনার অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।