বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২

|

আষাঢ় ১৫ ১৪২৯

Advertisement
Narayanganj Post :: নারায়ণগঞ্জ পোস্ট

গঠনতন্ত্র না মেনে শ্রমিক লীগের সদস্য সচিব পদে সাদ্দাম হোসেন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

প্রকাশিত: ১৯:৪৪, ২২ জুন ২০২২

গঠনতন্ত্র না মেনে শ্রমিক লীগের সদস্য সচিব পদে সাদ্দাম হোসেন

সাদ্দাম হোসেন

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজী আঞ্চলিক শ্রমিক লীগের আহ্বায়ক প্রস্তুতি কমিটিতে গঠনতন্ত্র না মেনে সাদ্দাম হোসেন নামের একজনকে সদস্য সচিব হিসেবে রাখার অভিযোগ উঠেছে।

এর আগে বৃহস্পতিবার (২৬ মে) পূর্বের কমিটি বাতিল করে জাতীয় শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি নূর কুতুব আলম মান্নান এবং সাধারণ সম্পাদক কে এম আজম খশরুর স্বাক্ষরকৃত প্যাডে ২৬ সদস্য বিশিষ্ট আহ্বায়ক প্রস্তুতি কমিটি গঠন করা হয়। আগামী ছয় মাসের জন্য ওই কমিটির অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

আহ্বায়ক প্রস্তুতি কমিটিতে সিদ্ধিরগঞ্জ আদমজী আঞ্চলিক শ্রমিক লীগের সাবেক সভাপতি আব্দুস সামাদ বেপারীকে আহ্বায়ক করে ১৩ জনকে যুগ্ম আহ্বায়ক এবং সদস্য সচিব হিসেবে সাদ্দাম হোসেনকে রেখে ২৬ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়েছে। 

সাদ্দাম হোসেনকে কমিটির সদস্য সচিবের মতো গুরুত্বপূর্ণ পদে রাখায় তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের মধ্যে এক ধরণের চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে।

শ্রমিক লীগের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী, শ্রমিকলীগের কোনো গুরুত্বপূর্ণ পদ পাওয়ার জন্য প্রথমে ওই ব্যক্তিকে শ্রমিকলীগের যেকোনো কমিটির সদস্য হিসেবে অন্তর্ভুক্ত থাকতে হবে। তবে আদমজী আঞ্চলিক শ্রমিকলীগের ক্ষেত্রে ভিন্নতা দেখা দিয়েছে।

আহবায়ক কমিটির সদস্য সচিব হওয়া সাদ্দাম হোসেন পূর্বে কখনো শ্রমিকলীগের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন না এমনই অভিযোগ পাওয়া গেছে তার বিরুদ্ধে। 

জানতে চাইলে আহবায়ক কমিটির সদস্য সচিব সাদ্দাম হোসেন জানান, তিনি ২০০৬ সাল থেকে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত। দুর্ভাগ্যবশত সর্বশেষ ১৮ বছর শ্রমিক লীগের কোনো কমিটি না হওয়ায় তিনি কোনো পদে যুক্ত হতে পারে নি। শ্রমিক লীগের সদস্য সচিব হতে হলে গঠনতন্ত্র অনুযায়ী প্রথমে সদস্য হওয়া লাগে এমন নিয়ম জানা নেই তার।  

তিনি আরো বলেন, তার আপন বড় চাচা আলমাস শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি ছিলেন। তার পরিবার সবসময় শ্রমিক রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন বলে জানান তিনি।

আদমজী আঞ্চলিক শ্রমিক লীগের সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি মোঃ কবির হোসেন বলেন, সাদ্দাম হোসেন কীভাবে সদস্য সচিব হলেন তা আমার জানা নেই। সে কোনোদিনই শ্রমিক লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন না।

এ বিষয়ে আদমজী আঞ্চলিক শ্রমিক লীগের সাবেক সভাপতি আব্দুস সামাদ বেপারী  বলেন, এ বিষয়ে আমি তেমন কিছু জানিনা। সদস্য সচিব হওয়া সাদ্দাম হোসেন কখনো শ্রমিক লীগের কোন ওয়ার্ড কমিটির সদস্যও ছিলেন না। সে যেহেতু কখনো আমাদের কমিটির সদস্য ছিলেন না বিধায় তার সদস্য সচিব পদ পাওয়ার কথা না। 

এ ব্যাপারে জাতীয় শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি শাহাবুদ্দিন মিয়া জানান, সাদ্দাম হোসেন দীর্ঘদিন আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। তাই তাকে এ পদ দেওয়া হয়েছে। এ বছরের ডিসেম্বর মাসে শ্রমিক লীগের সম্মেলন হবে সেজন্য এই আহবায়ক কমিটির অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। আর এ আহবায়ক কমিটি মাত্র ৬ মাসের জন্য অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। ভোটের মাধ্যমে চূড়ান্ত কমিটি গঠন করা হবে তাই এ কমিটি নিয়ে উত্তেজিত হওয়ার কিছু নেই। 

তিনি আরো বলেন, সাদ্দাম হোসেনের পুরো পরিবার শ্রমিকলীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। আমি যখনি সিদ্ধিরগঞ্জের শ্রমিকলীগের যেকোনো প্রোগ্রামে যেতাম সবসময় সাদ্দামকে ফিল্ডে দেখতাম। এ কমিটি দেওয়ার পর থেকে আব্দুস সামাদ বেপারী কেনো এমন করছে তা আমার জানা নেই।