শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২

|

আশ্বিন ১৪ ১৪২৯

Advertisement
Narayanganj Post :: নারায়ণগঞ্জ পোস্ট

নারায়ণগঞ্জে সাবেক ছাত্রদল সভাপতি জাকির খান অস্ত্রসহ গ্রেফতার 

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

প্রকাশিত: ১১:৪০, ৩ সেপ্টেম্বর ২০২২

নারায়ণগঞ্জে সাবেক ছাত্রদল সভাপতি জাকির খান অস্ত্রসহ গ্রেফতার 

ফাইল ছবি

নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি ও পুলিশের তালিকাভুক্ত শীর্ষ সন্ত্রাসী জাকির খানকে বিদেশী পিস্তলসহ গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন। 

শনিবার (৩ সেপ্টেম্বর) এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন র‍্যাব ১১ এর সিপিসি ১ এর কোম্পানি কমান্ডার একেএম মুনিরুল আলম।  বেলা ১২টায় সংবাদ সম্মেলন করে র‌্যাব বিস্তারিত জানাবে। 

জাকির খান এক সময়ে ছিলেন ছাত্রদলের নায়ক। পরবর্তীতে বিএনপির রাজনীতিতে জড়ানোর পরেই ক্রমশ খলনায়কের ভূমিকায় অবতীর্ণ হন তিনি। জাকির খান দীর্ঘ প্রায় দেড় যুগেরও কাছাকাছি সময় ধরে দেশের বাইরে অবস্থান করেন। পরে তিনি দেশে ফিরে আসেন। 

জানা যায়, শহরের দেওভোগ এলাকার শীর্ষ সন্ত্রাসী দয়াল মাসুদকে শহরের সোনার বাংলা মার্কেটের পেছনে প্রকাশ্যে গুলি করে হত্যা করে দুধর্ষ হিসেবে শহরে পরিচিত হয়ে উঠেন জাকির খান। ১৯৯৬ সালে বিএনপি সরকারের শেষ দিকে জাকির খান শহরের খাজা সুপার মার্কেটে হামলা ও ভাঙ্গচুরের ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় ৭ বছরের সশ্রম কারাদন্ড প্রাপ্ত হয়ে জেলে যায়। একই বছরে আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় আসার ৭ মাসের মাথায় কাশীপুর বাংলা বাজার এলাকায় এক ঠিকাদারের কাছে চাঁদা দাবীর অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় দ্বিতীয় দফায় জাকির খানের ৫ বছরের সশ্রম কারাদন্ড হয় এবং জেলে যায়। 

১৯৯৯ সালে স্বল্প সময়ের জন্য জেল থেকে বের হয়ে জাকির খান জেলা ছাত্রদলের সভাপতির পদটি পেয়ে যান। ২০০১ সালে বিএনপি ক্ষমতায় আসার পরও প্রায় ৫ মাস জেলে থাকেন জাকির খান। ওই বছরের ৯ সেপ্টেম্বর শহরের ডিআইটিতে তাকে সংবর্ধনা দেওয়া হয় যেখানে জনতার ঢল নামে। 

সর্বশেষ ২০০৩ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারী তৎকালীন জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক ও বিআরটিসির তৎকালীন চেয়ারম্যান তৈমুর আলম খন্দকারের ছোট ভাই ব্যবসায়ী নেতা সাব্বির আলম খন্দকার আততায়ির গুলিতে নিহত হয়। এ ব্যাপারে জাকির খানকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন তৈমুর আলম খন্দকার। এর পর জাকির খান নারায়ণগঞ্জ ছেড়ে পাড়ি জমায় থাইল্যান্ডে। পরে আবার তিনি দেশে গোপনে ফিরে আসেন।