রোববার, ০৩ মার্চ ২০২৪

|

ফাল্গুন ১৯ ১৪৩০

Advertisement
Narayanganj Post :: নারায়ণগঞ্জ পোস্ট

নারায়ণগঞ্জ বিএনপির আন্দোলন হিরো আজাদ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

প্রকাশিত: ১৬:২৬, ২০ জানুয়ারি ২০২৪

নারায়ণগঞ্জ বিএনপির আন্দোলন হিরো আজাদ

ফাইল ছবি

নারায়ণগঞ্জে বিএনপির চলমান আন্দোলনে সক্রিয় ভূমিকা পালন করে ব্যাপক আলোচনায় ছিলেন বিএনপির সহ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক সম্পাদক নজরুল ইসলাম আজাদ। নারায়ণগঞ্জে বিএনপির প্রথম সারির নেতাদের মধ্যে একমাত্র আজাদকেই মাঠে দেখা গেছে।

ঢাকায় ২৮ অক্টোবর বিএনপির সমাবেশে সংঘর্ষের পর থেকেই আত্মগোপনে চলে যান নারায়ণগঞ্জ বিএনপির শীর্ষ পর্যায়ের প্রায় সকল নেতা। ২৮ অক্টোবরের পর থেকে টানা দুই মাস হরতাল অবরোধের মত কর্মসূচি নিয়ে মাঠে ছিল বিএনপি। এসময় একমাত্র আজাদকেই সরাসরি মাঠে দেখা গেছে।

আড়াইহাজারের পাঁচরুখী এলাকায় হরতালের সমর্থনে মিছিল বের করলে বিএনপি নেতাকর্মীদের সাথে পুলিশের তুমুল সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বিএনপির বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী গুলিবিদ্ধ হয়। এছাড়াও পুলিশের বেশ কয়েকজন সদস্য গুরুতর আহত হন। সংঘর্ষের ঘটনার পর হরতালে দেশব্যাপী আলোচনায় চলে আসে নারায়ণগঞ্জ। 

সংঘর্ষের পর আড়াইহাজারে আজাদের বাড়িতে হামলার ঘটনাও ঘটে।

এছাড়াও সংঘর্ষের জেরে ও হরতাল অবরোধের মামলায় নারায়ণগঞ্জ বিএনপির অনেক নেতাকর্মী গ্রেফতার হয়। এসময় নেতাকর্মীদের পরিবারের নিয়মিত খোঁজখবর রাখেন আজাদ। পাশাপাশি গ্রেফতারকৃত নেতাকর্মীদের জামিনের জন্য আইনি সহায়তা ও কর্মীদের জামিন করাতেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন এই নেতা।

নেতাকর্মীরা জানান, আন্দোলনের এই সময়ে এসে নেতাকর্মীদের খোঁজ খবর রেখেছেন পাশে থেকেছেন আজাদ। তবে দলের অন্য নেতাদের এসময় কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি। জেলার শীর্ষ নেতাদের মধ্যে একমাত্র আজাদই তার কর্মীদের মাঠে নামিয়েছেন উৎসাহ দিয়েছেন। অন্যান্য নেতারাও এভাবে মাঠে নামলে দৃশ্যপট পাল্টে যেতে পারত।

আড়াইহাজার পৌরসভা বিএনপির সভাপতি মোহাম্মদ উল্ল্যাহ জানান, আজাদ ভাই একজন এমন নেতা যিনি শুধু নির্দেশ দেননি নিজেও মাঠে থেকেছেন। এখনো আমাদের সকলের খোঁজ খবর রাখছেন। আমাদের প্রতিনিয়ই কর্মসূচী পালনে তিনি উৎসাহ দিয়েছেন। যখন যার যেখানে যা প্রয়োজন হয়েছে সাধ্যমত করতে চেষ্টা করেছেন তিনি। তারমত যদি নারায়ণগঞ্জের সব নেতারা মাঠে থাকতো তাহলে হয়তো আন্দোলনের চিত্রটা ভিন্ন হত।