বুধবার, ২২ মে ২০২৪

|

জ্যৈষ্ঠ ৭ ১৪৩১

Advertisement
Narayanganj Post :: নারায়ণগঞ্জ পোস্ট

আবজাল হত্যাকান্ডে মূলহোতা গ্রেপ্তার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

প্রকাশিত: ১৮:৫৬, ২৫ মে ২০২৩

আপডেট: ১৯:০৭, ২৫ মে ২০২৩

আবজাল হত্যাকান্ডে মূলহোতা গ্রেপ্তার

রাজু প্রধান

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার “আবজাল” হত্যাকান্ডের মূলহোতা রাজু প্রধানকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন।

বৃহস্পতিবার (২৫ মে) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানান র‍্যাব ১১ এর সিনিয়র এএসপি মোঃ রিজওয়ান সাঈদ জিকু।

দুপুরে মুন্সিগঞ্জ জেলার টঙ্গীবাড়ি থানার আমতলি এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে তাকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব ১১। রাজু প্রধান (৩৫) ফতুল্লার পশ্চিম দেওভোগের বাংলা বাজার প্রধান বাড়ির রিয়াজ প্রধানের ছেলে।

র‍্যাব জানায়, ভিকটিম আবজাল প্রধান একজন সিমেন্ট ব্যবসায়ী। ভিকটিম আবজাল প্রধান এবং গ্রেপ্তারকৃত আসামির সাথে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন যাবত বিরোধ চলে আসছিল। গত ৬ এপ্রিল আবজাল প্রধান প্রতিদিনের ন্যয় ব্যবসার উদ্দেশ্যে বাসা থেকে বের হয়ে দেওভোগ মাদ্রাসা মার্কেট সংলগ্ন হাসেমবাগ যাওয়ার সময় আসামি ও তার অন্যান্য সঙ্গীয় ১৫/১৬ জনের একটি অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী দল আবজালকে পূর্ব-শত্রুতার জের ধরে দেশীয় ধারালো অস্ত্র দিয়ে আক্রমণ করে এবং এলোপাথাড়ি মারধর করতে থাকে। মারামারির এক পর্যায়ে আসামি আবজালকে ধারালো রামদা দিয়ে মাথায় আঘাত করে এবং অন্যান্য সঙ্গীয় ১৫/১৬ জন মিলে ভিকটিমকে এলোপাথারীভাবে কুপিয়ে মারাত্মক আহত ও অঙ্গহানী করে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে ভিকটিম আবজালকে উদ্ধার করে ভিক্টোরিয়া জেনারেল হসপিটাল এ নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। 

উক্ত ঘটনায় ভিকটিমের বাবা বাদী হয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলার ফতুল্লা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। 

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তারকৃত আসামি বর্ণিত হত্যাকান্ডের মূল পরিকল্পনাকারী বলে স্বীকার করেছে বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায় র‍্যাব। রাজু প্রধানের বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন থানায় ০২টি হত্যা মামলা, ০১টি অস্ত্র মামলা, ০৩টি ডাকাতি মামলা, ১০টি মাদক মামলাসহ বিভিন্ন অপরাধের মোট-২৩টি মামলা চলমান রয়েছে। এ ঘটনায় সংশ্লিষ্ট অন্যান্য অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত আছে বলেও জানায় র‍্যাব।

পরবর্তী আইনানুগ কার্যক্রমের জন্য গ্রেপ্তারকৃত আসামিকে নারায়ণগঞ্জ জেলার ফতুল্লা থানার মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তার নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে।