মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪

|

আষাঢ় ৩১ ১৪৩১

Advertisement
Narayanganj Post :: নারায়ণগঞ্জ পোস্ট

বন্দরে ভলান্টিয়ারদের নিয়ে প্যালিয়েটিভ কেয়ার বিষয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

প্রকাশিত: ২২:৩১, ১২ জুন ২০২৪

আপডেট: ২২:৩২, ১২ জুন ২০২৪

বন্দরে ভলান্টিয়ারদের নিয়ে প্যালিয়েটিভ কেয়ার বিষয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

ফাইল ছবি

বন্দরে ভলান্টিয়ারদের নিয়ে প্যালিয়েটিভ কেয়ার বিষয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার (১২ জুন) বিকাল ৩টায় বন্দর উপজেলার স্টাডি কিন্ডার গার্টেন এন্ড হাই স্কুলে  এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

আয়াত এডুকেশন’র আয়োজনে‘মমতাময় নারায়ণগঞ্জ’ প্রকল্পের আওতায় বন্দর উপজেলার ভলান্টিয়ারদের কমিউনিটি ভিত্তিক প্যালিয়েটিভ কেয়ার কার্যক্রমের সাথে তাদের উদ্বুদ্ধ করতে এবং প্রকল্পের কল্যাণমূলক কাজে তাদের সম্পৃক্ত করার লক্ষ্যে এ সভার আয়োজন করা হয়। 

আয়াত এডুকেশনের প্রজেক্ট কো- অর্ডিনেটর সুমিত বণিক এর সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন বন্দর প্রেসক্লাবের উপদেষ্টা মো. কবির হোসেন, লায়ন্স ক্লাব অফ ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ সিটি’র ডিরেক্টর বাবু ছারোয়ার, স্টাডি কিন্ডার গার্ডেনের পরিচালক আ. জলিল ভুইয়া, মমতাময় নারায়ণগঞ্জ প্রকল্পের ফিল্ড অফিসার মোঃ হাসান হাফিজুর রহমান, লিও ক্লাব অব নারায়ণগঞ্জ সিটির সভাপতি জাকারিয়া হোসেন, এ্যাসিস্ট্যান্ট প্রজেক্ট অফিসার, কমিউনিটি মবিলাইজার ফাহিম হোসেন, অনন্যা রহমান, বিডি ক্লিন’ নারায়ণগঞ্জ সদর’র সমন্বয়ক শফিকুল ইসলাম, পূজা রাণী সরকার, প্রমুখ।

সুমিত বণিক বলেন, ‘ভলান্টিয়াররা যেকোন সমাজের জন্য প্রাণ শক্তি। এই শক্তিকে আমাদের কাজে লাগাতে হবে। ভলান্টিয়াররা ঐক্যবদ্ধ হলে সমাজের যেকোন কল্যাণমূলক কাজে সফল হওয়া সম্ভব। ভলান্টিয়ারিংয়ের মাধ্যমে নতুন দক্ষতা শেখা এবং পুরনো দক্ষতা উন্নত করার সুযোগ পাওয়া যায়, সেই সাথে অন্যদের সাহায্য করার মাধ্যমে জীবনের প্রকৃত অর্থ খুঁজে পাওয়া সম্ভব। পাশাপাশি আমরা ‘মমতাময় নারায়ণগঞ্জ’ প্রকল্পের অধীনে বন্দর উপজেলায় একটি সহায়ক পরিবেশ গড়ে তুলতে চাই, যেখানে কোন দীর্ঘমেয়াদি রোগে আক্রান্ত অসহায় বা নিরাময় অযোগ্য রোগে আক্রান্ত অসুস্থ ব্যক্তি প্যালিয়েটিভ কেয়ারের সেবার সুযোগ থেকে বঞ্চিত হবে না। সেই আমাদের প্রত্যাশা ভলান্টিয়াররা যার যার অবস্থান থেকে রোগীদের পাশে থাকবে।

উল্লেখ্য যে, তিন বছর মেয়াদি ‘মমতাময় নারায়ণগঞ্জ’ এই পাইলট প্রকল্পের মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবায় প্যালিয়েটিভ কেয়ারকে সংযুক্তিকরণ। নিরাময় অযোগ্য, জীবন সীমিত রোগে আক্রান্ত রোগীদের জীবনের প্রান্তিক সময়টুকু ভোগান্তি বিহীন, যন্ত্রনা বিহীন ও নিরাপদ করার লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা প্রদান করা। সেইসাথে প্রকল্পটি আক্রান্ত ব্যক্তি ও তার পরিবারের শারীরিক, মানসিক, সামাজিক ও আত্মিক কষ্টগুলো কমিয়ে জীবনের গুণগত মান উন্নয়ন করার লক্ষ্যে কাজ করছে।