শনিবার, ২৫ জুন ২০২২

|

আষাঢ় ১০ ১৪২৯

Advertisement
Narayanganj Post :: নারায়ণগঞ্জ পোস্ট

পরিবেশের ক্ষতি করায় জামান ব্রিকসকে জরিমানা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

প্রকাশিত: ২০:৩৪, ২২ জুন ২০২২

পরিবেশের ক্ষতি করায় জামান ব্রিকসকে জরিমানা

প্রতীকী ছবি

পরিবেশের ক্ষতিসাধন করায় বন্দরের জামান ব্রিকসের মালিক নুরুজ্জামানকে বিভিন্ন ধারায় ৪ লাখ টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে ৪ মাসের জেল দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জের পরিবেশ আদালত।

২২ জুন সকালে পরিবেশ আদালতের স্পেশাল ম্যাজিস্্েরট ও সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কাউসার আলমের আদালত এ আদেশ দেন।

পরিবেশ আদালত সূত্রে জানা যায়, পরিবেশ ছাড়পত্র না থাকায় জামান ব্রিকসের মালিক নুরুজ্জামানকে দুই লাখ টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে দুই মাসের জেল দিয়েছেন আদালত। এছাড়াও ইট প্রস্তুত ও ভাটা স্থাপন আইনে এক লাখ টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে এক মাসের জেল দিয়েছেন আদালত। অন্যদিকে নিষিদ্ধ এলাকায় ইট ভাটা স্থাপন করায় এক লাখ টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে এক মাসের জেল দিয়েছেন আদালত।

এর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন আদালতের স্টেনোগ্রাফার কাম কম্পিউটার অপারেটর (ব্যক্তিগত সহকারী) সাইফুল মীর। তিনি জানান, নূরুজ্জামান তাৎক্ষনিক জরিমানার সব টাকা পরিশোধ করায় তাকে মুক্তি দিয়েছেন আদালত। এছাড়াও পরিবেশ আদালত আইন ২০১০ এর  ৬(২) ধারার বিধান অনুযায়ী ইটভাটার কার্যক্রম বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।
পরিবেশের ক্ষতি করায় জামান ব্রিকসকে জরিমানা

পরিবেশের ক্ষতিসাধন করায় বন্দরের জামান ব্রিকসের মালিক নুরুজ্জামানকে বিভিন্ন ধারায় ৪ লাখ টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে ৪ মাসের জেল দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জের পরিবেশ আদালত।

২২ জুন সকালে পরিবেশ আদালতের স্পেশাল ম্যাজিস্্েরট ও সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কাউসার আলমের আদালত এ আদেশ দেন।

পরিবেশ আদালত সূত্রে জানা যায়, পরিবেশ ছাড়পত্র না থাকায় জামান ব্রিকসের মালিক নুরুজ্জামানকে দুই লাখ টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে দুই মাসের জেল দিয়েছেন আদালত। এছাড়াও ইট প্রস্তুত ও ভাটা স্থাপন আইনে এক লাখ টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে এক মাসের জেল দিয়েছেন আদালত। অন্যদিকে নিষিদ্ধ এলাকায় ইট ভাটা স্থাপন করায় এক লাখ টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে এক মাসের জেল দিয়েছেন আদালত।

এর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন আদালতের স্টেনোগ্রাফার কাম কম্পিউটার অপারেটর (ব্যক্তিগত সহকারী) সাইফুল মীর। তিনি জানান, নূরুজ্জামান তাৎক্ষনিক জরিমানার সব টাকা পরিশোধ করায় তাকে মুক্তি দিয়েছেন আদালত। এছাড়াও পরিবেশ আদালত আইন ২০১০ এর  ৬(২) ধারার বিধান অনুযায়ী ইটভাটার কার্যক্রম বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।