বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪

|

জ্যৈষ্ঠ ২৮ ১৪৩১

Advertisement
Narayanganj Post :: নারায়ণগঞ্জ পোস্ট

সোনারগাঁয়ে ডিমসহ পিকআপ ভ্যান ছিনতাইকান্ডে গ্রেপ্তার ২

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

প্রকাশিত: ২২:৪২, ২৯ মে ২০২৪

সোনারগাঁয়ে ডিমসহ পিকআপ ভ্যান ছিনতাইকান্ডে গ্রেপ্তার ২

ফাইল ছবি

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে ডিমবোঝাই একটি পিকআপভ্যান ছিনতাইয়ের ঘটনায় দুই ছিনতাইকারীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 

বুধবার (২৯ মে) তাদেরকে নারায়ণগঞ্জ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। 

এর আগে মঙ্গলবার রাতে উপজেলার কাঁচপুর বাজার এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় পুলিশ তাদের কাছ থেকে ছিনতাই হওয়া ২০ হাজার ডিম থেকে ২হাজার ৬৭০ পিছ ডিম উদ্ধার করে। 

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- মো. রাজু (২৭) ও মো. শাওন (২১)। বুধবার সকালে গ্রেপ্তারকৃত দুই ছিনতাইকারীকে ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে প্রেরণ করে পুলিশ।

জানা যায়, গত ২৩ মে বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে টাটা এইচ পিকআপভ্যান (ঢাকা মেট্রো ন-১৮-২৬২৩) কিশোরগঞ্জ থেকে ১২ হাজার লাল ডিম ৬ হাজার হাঁসের ডিম এবং ২ হাজার কোয়েল পাখির ডিম নিয়ে সোনারগাঁয়ে রওনা করে। পিকআপ ভ্যানটি সোনারগাঁ উপজেলার প্রভাকরদী-তালতলা বাজারের মাঝামাঝি এলাকা অতিক্রমকালে পেছন দিক থেকে দ্রুতগতিতে একটি মাহিন্দ্রা বোলার ডিমবোঝাই পিকআপভ্যানের গতিরোধ করে। পরে পিকআপভ্যানের চালক হুমায়ুন ও হেলপার সিরাজকে দুর্বৃত্তরা রাস্তার পাশেই বৈদ্যুতিক খুঁটির সঙ্গে বেঁধে মারধর করে ডিমবোঝাই ভ্যানটি নিয়ে পালিয়ে যায় ছিনতাইকারীরা। 

এ ঘটনায় ডিম ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর আলম বাদী হয়ে সোনারগাঁ থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ এ মামলায় বিভিন্ন জায়গায় গোপন সূত্রে তাল্লাশী চালায়। গত মঙ্গলবার রাতে উপজেলার কাঁচপুর বাজারে ডিম পট্টীতে অভিযান চালায় সোনারগাঁ থানা পুলিশ। 

গ্রেপ্তারকৃতদের স্বীকারোক্তীতে ২০ হাজার ডিম থেকে ২ হাজার ৬৭০ পিছ ডিম উদ্ধার করা হয়। বাকী ডিম অন্যত্রে বিক্রি করে দেয়। তবে ডিমবোঝাই পিকআপভ্যানটির হদিস পাওয়া যায়নি। 

তাদের প্রাথমিকভাবে জিজ্ঞাসাবাদে পিকআপের বিষয়টি নানা কৌশলে এড়িয়ে যায়।  

গ্রেপ্তারকৃত রাজু কাঁচপুর পুরান বাজার এলাকার মৃত সিদ্দিকের ছেলে ও শাওন লক্ষীপুর জেলার রামগতি থানার চররমিজ গ্রামের সাইফুল ইসলাম মামুনের ছেলে।

সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ কামরুজ্জামান জানান, ডিমবোঝাই পিকআপ ছিনতাইয়ের ঘটনা ২ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃতদের ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হয়।