শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

|

মাঘ ১৯ ১৪২৯

Advertisement
Narayanganj Post :: নারায়ণগঞ্জ পোস্ট

বন্দরের ভূমি অফিসে গ্রাহক হয়রানির পরিত্রান চায় গ্রাহকরা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

প্রকাশিত: ২৩:১০, ২৩ জানুয়ারি ২০২৩

বন্দরের ভূমি অফিসে গ্রাহক হয়রানির পরিত্রান চায় গ্রাহকরা

প্রতীকী ছবি

বন্দরে ভূমি অফিস গুলিতে গ্রাহক হয়রানি চরম আকার ধারণ করেছে। নামজারি করতে গেলে বিড়ম্ভনার শিকার হচ্ছে গ্রাহকরা। ২৮ দিনের মধ্যে নামজারি সম্পন্ন করার কথা থকলেও ৬ মাসেও নামজারি করতে পারেনা। এর কারণ হলো গ্রাহ যদি দালাল বা ওমেদাদের মাধ্যমে নামজারির কাজ না দিলে হয়রানি হতে হয়। 

এখাধিক গ্রাহক জানান, দালাল বা ওমেদাদের মাধ্যমে নামজারির আবেদন করালে তা ২৮ দিনে হয়ে যায়। আর তারা হাতিয়ে নেয় হাজার হাজার টাকা। আর গ্রাহ যখন নিজে নামজারির চেষ্টা করে তা হলে বিধিবাম। নানা অজুহাতে হয়রানি শুরু করে। দেখা যায়, যদি কোন গ্রাহক নিজে বাইরে থেকে নামজারির আবেদন করেন তখন ভ’মি অফিস থেকে বলা হয় আবেদনে ভুল রয়েছে এ জন্য নামজারি করা যাবে না। একই আবেদন ওমেদা বা দালাল করে তখন তা সঠিক হয়ে যায়। এভাবে দুর্নীতি আর অনিয়মের মধ্যে আবদ্ধ বন্দরের ভ’মি অফিসগুলি। কোন আবেদন যদি নায়েব অফিসে যায় তখন শুরু হয় চুক্তি। জমির পরিমান অনুযায়ি টাকা দিতে হয়। এভাবে গ্রাহকদের হয়রানি করা হয়। বন্দরের প্রতিটি অফিসে রয়েছে দালাল ও ওমেদাদের দৌরাত্ব। 

এক গ্রাহক নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, আমারা নিজে আবেদন করে যখন ভ’মি অফিসে যোগাযোগ করি তখন তারা বলেন, ফাইল কম্পিউটার অপারেটেরের টেবিলে, আবার কম্পিউটার অপারেটর বলেন, কানুনগো’র টেবিলে আবার কানুনগো বলেন সার্ভেয়ারের টেবিলে। এভাবে অফিসে গ্রহিকদের হয়রানি হতে হয়। এতে করে গ্রাহকরা চরম ভাবে হয়রানির শিকার হচ্ছে। গ্রাহকরা ভ’মি অফসের দালাল ও ওমেদাদের কবল থেকে মুক্তি পেতে চায়। এ থেকে পরিত্রাণ চায় বন্দরবাসী।