শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

|

মাঘ ১৯ ১৪২৯

Advertisement
Narayanganj Post :: নারায়ণগঞ্জ পোস্ট

সোনারগাঁয়ে চাইনিজ নাগরিকদের পিটিয়ে কুপিয়ে ডাকাতির ঘটনায় এক ডাকাত গ্রেপ্তার আদালতে স্বীকারোক্তি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

প্রকাশিত: ২৩:২৮, ২৩ জানুয়ারি ২০২৩

সোনারগাঁয়ে চাইনিজ নাগরিকদের পিটিয়ে কুপিয়ে ডাকাতির ঘটনায় এক ডাকাত গ্রেপ্তার আদালতে স্বীকারোক্তি

প্রতীকী ছবি

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের পিরোজপুর ইউনিয়নের এনএপিসি-৩ পাওয়ার কোম্পানিতে চাইনিজ নাগরিকদের পিটিয়ে কুপিয়ে ডাকাতির ঘটনায় ফারুক ওরফে চাপাতি ফারুক নামের এক ডাকাতকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃত চাপাতি ফারুক পিরোজপুর গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে। রোববার রাতে পিরোজপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে। গতকাল সোমবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট কাউসার আলমের আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে গ্রেপ্তারকৃত ডাকাত। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নারায়ণগঞ্জ কোর্ট পুলিশের পরিদর্শক মো. আসাদুজ্জামান মিয়া। এর আগে গত শুক্রবার রাতে এনএপিসি-৩ পাওয়ার কোম্পানীর ইয়ার্ডে ডাকাতির ঘটনা ঘটে। ডাকাতরা চাইনিজ নাগরিকসহ ৫ জনকে কুপিয়ে নগদ টাকা, ইউএস ডলার ও মোবাইল সেটসহ প্রায় ১১ লাখ টাকার মালপত্র লুট করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় পরদিন ওই এনএপিসি-৩ পাওয়ার কোম্পানির ইয়ার্ড মালিক মোজাম্মেল হোসেন বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেন। 

জানা যায়, উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের পিরোজপুর আগমন সিএনজি পাম্প সংলগ্ন জমি ভাড়া নিয়ে পিরোজপুর গ্রামের ফজলুল হকের ছেলে মোজাম্মেল হক এনএপিসি-৩ পাওয়ার কোম্পানি ইয়ার্ড গড়ে তোলেন। সেখানে চারজন চাইনিজ নাগরিক ও একজন দোভাষীসহ ১২ জন কর্মরত রয়েছেন। গত শুক্রবার সন্ধ্যা ৬ টার দিকে ১০-১২ জনের ডাকাত দল ওই ইয়ার্ডে হামলা করে। এক পর্যায়ে ডাকাতরা চাইনিজ নাগরিকসহ সবাইকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে বেধে একটি কক্ষে নিয়ে যায়। ডাকাতরা চাইনিজ নাগরিক সুপারভাইজার উগং ,লিও জাইকিং, সং কিজুং, দোভাষী গোলাম আজম ও গাড়ি চালক তরিকুলকে পিটিয়ে আহত করে তাদের কাছ থেকে নগদ টাকা, ইউএস ডলার ও মোবাইল ফোনসহ ১১ লাখ টাকা মালপত্র ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এসময় ডাকাতরা চাইনিজ নাগরিক সুপার ভাইজার উগংয়ের হাতের ঘড়ি নিতে চাইলে সে বাধা দেয়। এসময় উগং ও দোভাষী গোলাম আজমকে কুপিয়ে মারাক্তকভাবে আহত করে। আহতদের সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও ঢাকা স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ঘটনার পরদিন এনএপিসি-৩ পাওয়ার কোম্পানির ইয়ার্ড মালিক মোজাম্মেল হোসেন বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেন। ডাকাতির সঙ্গে জড়িত থাকায় পিরোজপুর গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে চাপাতি ফারুককে রোববার রাতে গ্রেপ্তার করে নারায়ণগঞ্জ আদালতে প্রেরণ করে পুলিশ। ডাকাতির সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে গ্রেপ্তারকৃত ফারুক আদালতে ১৬৪ ধারা জবানবন্দি দিয়েছে। আদালত জাববন্দি রেকর্ডের পর তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করে।

সোনারগাঁ থানার পরিদর্শক(তদন্ত) মোহাম্মদ আহসাউল্লাহ বলেন, চাইনিজ নাগরিকদের পিটিয়ে ও কুপিয়ে ডাকাতির ঘটনায় এক ডাকাতকে গ্রেপ্তার  করা হয়েছে। সে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।