শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪

|

আষাঢ় ৭ ১৪৩১

Advertisement
Narayanganj Post :: নারায়ণগঞ্জ পোস্ট

হার্ট ইনিস্টিউটের কাজে বিলম্ব, সংসদে শামীম ওসমানের ক্ষোভ 

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

প্রকাশিত: ১৭:৪১, ৬ জুন ২০২৪

হার্ট ইনিস্টিউটের কাজে বিলম্ব, সংসদে শামীম ওসমানের ক্ষোভ 

ফাইল ছবি

নারায়ণগঞ্জ শহরের কালীরবাজার এলাকায় দু'শ কোটি টাকা ব্যায়ে নির্মিত নতুন ও পরিত্যক্ত আইন ভবনে হার্ট ইনিস্টিউটের কাজ শুরু না হওয়ায় সংসদে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমান। 

বুধবার (৫ জুন) জাতীয় সংসদের অধিবেশন চলাকালীন এই ক্ষোভ প্রকাশ করেন শামীম ওসমান। 

এসময় তিনি বলেন, মাননীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী অত্যন্ত সুযোগ্য ব্যাক্তি। গত অধিবেশনে তিনি আমাকে বলেছিলেন আমাকে জানাবেন। আমি জানতে চাই জাতির জনক বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল ট্রাস্ট কর্তৃক ২০২১ সালে জাতির পিতার কনিষ্ঠ কন্যা শেখ রেহানার নামে মেডিকেল কলেজ হওয়ার কথা ছিল। আমি জনগণের বেতনে চলি, কিন্তু জনগণকে জানাতে পারি না ২০২১ থেকে ২০২৪ পর্যন্ত মেডিকেল কলেজটা কেন এখনও হয়নি।

তিনি আরও বলেন, আমাদের সুযোগ্য আইনমন্ত্রী এখানে আছেন। ২০০ কোটি টাকা ব্যায়ে একটা ভবন নির্মাণ করা হয়েছে আমাদের মত দরিদ্র দেশে। ভবনটি পড়ে আছে। আমরা বলতে বলতে ক্লান্ত হইনি, আপনারা হয়ত বিরক্ত হন। আমি জানতে চাই ভবনটি তৈরি, সেখানে একটা হার্ট ইনিস্টিউট করবেন কীনা। 

তিনি বলেন, আমরা জনগণের বেতন যেহেতু নেই আমাদের বলতে হবে। শেখ রেহানার নাম আমার জন্য সেন্টিমেন্টাল। নারায়ণগঞ্জেই প্রথম তার নামে মেডিকেল কলেজ করার অনুমোদন হয়েছে। এটা কেন হয়নি আমি জানতে চাই।

শামীম ওসমানের প্রশ্নের জবাবে স্বাস্থমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন বলেন, মাননীয় সাংসদ এটা আগেও আমাকে বলেছেন। তবে বঙ্গবন্ধুর পরিবারের নামে কিছু করতে গেলে এটা বঙ্গবন্ধু ট্রাস্টের, সে কাগজটি আমাকে একটু দিবেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাদের বললেন একটু আগে, কোন কিছু করার আগে আমাদের জনবল দেখতে হবে। এটা হুট করে করা যায় না। আমাদের দক্ষ জনবল লাগবে। ঢাকার প্রতিষ্ঠান গুলোতেই আমাদের জনবলের ঘাটতি। দক্ষ জনবল তৈরি করে ইনিস্টিউটটা করা উচিত বলে মনে করি।