শনিবার, ২৫ জুন ২০২২

|

আষাঢ় ১০ ১৪২৯

Advertisement
Narayanganj Post :: নারায়ণগঞ্জ পোস্ট

পদ্মা সেতু উদ্বোধনে প্রধানমন্ত্রীকে স্যালুট জুয়েলের

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

প্রকাশিত: ২০:২৭, ২৩ জুন ২০২২

পদ্মা সেতু উদ্বোধনে প্রধানমন্ত্রীকে স্যালুট জুয়েলের

মোঃ জুয়েল হোসেন

আওয়ামীলীগের ৭৩ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জ মহানগর স্বেচ্ছাসেবকলীগের আয়োজনে আলোচনা সভা, দোয়া ও কেক কাটা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ২৩ জুন নাসিক ২০নং ওয়ার্ড দড়ি সোনাকান্দায় উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন নারায়ণগঞ্জ মহানগর স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাবেক সভাপতি মোঃ জুয়েল হোসেন।

অনুষ্ঠানে নারায়ণগঞ্জ মহানগর স্বেচ্ছাসেবকলীগের কার্যকরি সদস্য মুজাহিদ সরদার জনি সঞ্চালয়নায় মহানগর স্বেচ্ছাসেবকলীগের সিনিয়র কার্যকরি সদস্য আব্দুল খালেক সরদারের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন, নাসিক ২০নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ নেতা ডা. মোঃ শফিউল্লাহ। আরো উপস্থিত ছিলেন, মহানগর স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাবেক সহ-সভাপতি মানিক শেখ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম জয়, দপ্তর সম্পাদক ইকরানুর রশিদ, সহ-দপ্তর সম্পাদক রাকিবুল হাসান রেসি, ইফকাত আহমেদ পাপ্পু, আল মুজাহিদ পিয়াস, নাজমা আক্তার, মানবাধিকার বিয়ষক সম্পাদক সাদিয়া ইসলাম শান্তা, এইচ এম রাসেল, সজিব মোল্লা, হোসনেয়ারা বেগম, আইন বিষয়ক সম্পাদক এডঃ নজরুল ইসলাম, সমাজ কল্যাণ সম্পাদক আসলাম রাসেল, সুভাষ সাহা, সুমন, নাদিম, আফসার, রনি, রোমান, জাবেদ, রিপন, মীর মনির, মোখলেছুর রহমান , নূর হোসেন, মারুফ জাহান, সোহাগ, রাকিব প্রমুখ।

নারায়ণগঞ্জ মহানগর স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাবেক সভাপতি মোঃ জুয়েল হোসেন বলেন, রাজনীতি করি ১৯৯৩ সাল থেকে। সেসময় সরকারি তোলারাম কলেজে পদার্পণ করেছিলাম। মানুষের কষ্ট ও দুঃখ দেখতাম। আমার মামা মরহুম গোলাম সারোয়ার শামীম ওসমানের সাথে রাজনীতি করতেন। তিনি মামলা খেয়েছেন নির্যাতিত হয়েছেন কথ আঘাত বাধা এসেছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বলেছিলেন এবারের সংগ্রাম মুক্তির সংগ্রাম এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম। সেই ইতিহাস পড়ে ছাত্র রাজনীতির মাধ্যমে শুরু সে আমল থেকে আজ পর্যন্ত যখনই দায়িত্ব পেয়েছি চেষ্টা করেছি মানুষের পাশে দাড়াতে।

অনেকেই বড় বড় কথা বলেন বুলি দেন। আল্লাহ আমাদের কাজ করার ক্ষমতা দিয়েছেন আমরা চেষ্টা করি মানুষকে রাজী খুশি করে রাজনীতি করতে। এখানে সাংবাদিকরা আছেন আপনারা সত্যটা লিখবেন। একটা সময় অনেকে অনেক কথা বলত। আমাদের একুশ বছর ক্ষমতার বাইরে রাখা হয়েছিল মিথ্যা বলে। তারা বলত আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসলে এ দেশের মসজিদে আজান হবে না মা বোনের নির্বিঘেœ চলতে পারবে না দেশ হিন্দু হয়ে যাবে। এখানে অনেকেই আগে আওয়ামী লীগ করতেন না। পরে যখন আওয়ামী লীগের উন্নয়ন দেখেছেন তখন এসেছেন। আজ নারায়ণগঞ্জে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর এ রাস্তা কী হয়েছে আর আগে কী ছিল।

করোনার সময় অনেকে বলেছিল মানুষ না খেয়ে মারা যাবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আল্লাহর রহমতে কেউ না খেয়ে মরেনি। এটা শেখ হাসিনা অন্য কেউ না। তিনি দেশের মানুষের জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। আজ বিদ্যুতের অবস্থা দেখেন। এক সময় মানুষ বলত পড়তে যাও শিশুরা বলত বিদ্যুত নেই। আজ দেখতে হয় বিদ্যুত কখন যাবে। করোনার সময় সরকার নদগ টাকা দিয়েছে পাশাপাশি খাদ্য সামগ্রী দিয়েছে। আমরা যারা সেবক তারা নিজেদের অর্থায়নে মানুষের পাশে দারানের চেষ্টা করেছি। আপনাদের প্রশ্ন থাকতে পারে মানুষ ভাল নেই। দ্রব্যমূল্যের উর্ধগতি হচ্ছে। 

আজ পৃথিবীর মানুষ থমকে আছে। একদিকে যুদ্ধ করেকদিকে করোনা পরবর্তী সমস্যা। বাংলাদেশে ডিমের হালি কত আর বিদেশে কত। বিদেশে ডালের দাম একশ নব্বই টাকা কেজি। আমি মিথ্যার রাজনীতি করি না। আল্লাহ একজন আছেন। আমি হয়ত মিথ্যা বলে চলে যেতে পারব কিন্তু আল্লাহ আমার বিচার করবে। 
মুরুব্বিরা বলে তেমরা এত পাওয়ারফুল ড্রাগস বন্ধ করো না কেন। আমি আপনাদের এলাকার জামাই। সে হিসেবে দায়িত্ব আছে। এ দেশটা পুলিশ বা জনপ্রতিনিধির একা নয়। এ দেশ আমাদের সবার। মাদক প্রতিহত করতে সকলকে একসাথে কাজ করতে হবে। আমি অনুরোধ করব যারা নেতৃত্ব দিবেন একটু শুকরিয়া আদায় করবেন। যুব সমাজের প্রতি আহ্বান আপনারা আপনাদের পিতামাতার মন জয় করতে পারলে পরকালে শান্তি পাবেন। পিতামাতাকে কষ্ট দিলে একদিন আপনিও বাবা হবেন সেদিন আপনাকেও ভুগতে হবে। 

আগামী ২৫ তারিখ স্বপ্নের পদ্মা সেতুর উদ্বোধন। সেদিন এখানে তিন সন্তানের জন্ম হয়েছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী তাদের উপহার দিয়েছেন। আমি আপনাদের স্যালুট জানাই। আপনারা ঐক্যবদ্ধ থাকবেন আর আমাদের নেত্রীর জন্য দোয়া করবেন। আগামীতে প্রশাসনকে সাথে নিয়ে এ এলাকার মাদক নির্মূলের চেষ্টা করব।