রোববার, ১৬ জুন ২০২৪

|

আষাঢ় ১ ১৪৩১

Advertisement
Narayanganj Post :: নারায়ণগঞ্জ পোস্ট

আড়াইহাজারে স্বতন্ত্র প্রার্থীর প্রচারণায় বাধার অভিযোগ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

প্রকাশিত: ১৭:৪২, ৩ জুন ২০২৩

আড়াইহাজারে স্বতন্ত্র প্রার্থীর প্রচারণায় বাধার অভিযোগ

নির্বাচনী প্রচারণায় বাধা

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার গোপালদী পৌরসভার স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী তানভীর হোসেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী হালিম সিকদারের বিরুদ্ধে তার নিজ গ্রামে নির্বাচনী প্রচারণার সময় বাধা দেয়ার অভিযোগ তুলেছেন।

শনিবার (৩ জুন) দুপুরে গোপালদী পৌরসভা রামচন্দ্রদী গ্রামে নির্বাচনী প্রচারণায় যান তানভীর। এসময় গণসংযোগের সময় আওয়ামীলীগ প্রার্থী হালিম সিকদারের কর্মী দেওয়ান আলী তাকে সরাসরি বলেন, তুই এই গ্রামে আসবিনা। এসময় অকথ্য ভাষায় তাকে গালিগালাজ করা হয় ও মারধর করতে উদ্যত হলে তানভীর ফিরে যান। 

তানভীর জানান, আমি আমার নিজ গ্রাম রামচন্দ্রদীতে প্রচারণার সময় নৌকার প্রার্থী হালিম সিকদারের লোকজন আমাকে সেখানে বাধা দেয় গালিগালাজ করে এবং মারতে উদ্যত হন। এ ঘটনার ভিডিও রয়েছে। আমাকে তার কর্মী দেওয়ান সরাসরি বলেছেন এখানে যেন না আসি। পরে তাদের এ পরিস্থিতিতে আমি ফিরে আসি। বিষয়টি আমি রিটার্নিং কর্মকর্তাকে মৌখিকভাবে জানিয়েছি।

আড়াইহাজার থানারে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ ইমদাদুল ইসলাম তৈয়ব বলেছেন, কেউ অভিযোগ করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 এর আগে বৃহস্পতিবার (২ জুন) রাত সাড়ে ৯টায় উপজেলার গোপালদী পৌরসভার রামচন্দ্রদী গ্রামে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী তানভীর হোসেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী হালিম সিকদারের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসী হামলার অভিযোগ তুলেছেন। তিনি বলেছেন, হালিমের সন্ত্রাসীরা তার বাড়ি ও পাওয়ারলুম কারখানায় দেশিয় অস্ত্রসহ হামলা চালিয়েছে। হামলার ঘটনার একাধিক ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল। আবার অনেকে ভিডিও পোস্ট করে ঘটনাটি নির্বাচন কমিশনের নজরে আনতে চেষ্টা করছেন।

তানভীর হোসেন বলেন, গোপালদী পৌরসভার আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী হালিম সিকদার নিজেই প্রায় ৫০০ জন সন্ত্রাসীকে নিয়ে আসেন, তারা দেশিয় দিয়ে প্রথমে আমার কারখানা ও পরে বাড়িতে হামলা করেন। আমার কারখানা ভাংচুর করা হয়েছে। বাড়িতে অস্ত্রের মহড়া দিয়েছে। আমার মাসহ বাড়ির নারীরা সবাই আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। সন্ত্রাসীদের বাধা দিতে গেলে আমার তিন কর্মী আহত হয়।

এর আগেও নির্বাচনের আচরণবিধি ভেঙে স্থানীয় সংসদ সদস্যকে নিয়ে মিছিল সমাবেশ করে নৌকার প্রচারণা করেছে তারা। এখন হামলা করে আমাকে ভয়ভীতি দেখিয়ে নির্বাচন থেকে দূরে রাখতে চায়। তাই দ্রুত এ ব্যাপারে নির্বাচন কমিশনের পদক্ষেপ ও পুলিশের সক্রিয়তার দাবি করেন তানভীর।

সন্ত্রাসীয় হামলার ঘটনায় আহত হয়েছেন তানভীরের কর্মী নুর মোহাম্মদ (২৫),ইয়াকুব (২০) ও বায়েজিদ (২০)। তাদের উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।