বুধবার, ১২ জুন ২০২৪

|

জ্যৈষ্ঠ ২৮ ১৪৩১

Advertisement
Narayanganj Post :: নারায়ণগঞ্জ পোস্ট

ফতুল্লায় নিখোঁজের পর ডোবা থেকে লাশ উদ্ধার, প্রধান আসামি গ্রেপ্তার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

প্রকাশিত: ১৩:৫৫, ১৭ মার্চ ২০২৪

আপডেট: ১৪:০৬, ১৭ মার্চ ২০২৪

ফতুল্লায় নিখোঁজের পর ডোবা থেকে লাশ উদ্ধার, প্রধান আসামি গ্রেপ্তার

ফাইল ছবি

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় নিখোঁজের ০২ দিন পর ডোবা থেকে কিশোরের মরদেহ উদ্ধারের ঘটনার রহস্য উন্মোচন, আলামত উদ্ধারসহ অন্যতম প্রধান আসামি বুলবুল শেখ রাকিবকে (২৪) গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন।

রোববার (১৭ মার্চ) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানান র‍্যাব ১১ এর অধিনায়ক লে. কর্ণেল তানভীর মাহমুদ পাশা। 

গত ১৪ মার্চ ফতুল্লা মডেল থানাধীন পিলকুনি বড় কবরস্থান সংলগ্ন ঈদগাহ মাঠের পাশে ডোবার ভিতরে স্থানীয় লোকজন শরীরে আংশিক পচন ধরা অর্ধগলিত অবস্থায় একটি মৃত দেহ দেখতে পায় এবং ৯৯৯ এ ফোন করে পুলিশকে অবগত করে। পরবর্তীতে পুলিশ এলাকার লোকজনের সহায়তায় ডোবা হতে লাশ উদ্ধার করে এবং লোকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে ভিকটিমের মা ভিকটিমের চেহারা এবং পরিহিত পোশাক দেখে ভিকটিম চাঁদপুরের হাইমচরের কান্দি ইসানবালার মৃত মোক্তার হোসেনের ছেলে মোঃ রাজু খান (১৯) বলে শনাক্ত করে। ভিকটিমের পরিচয় সনাক্ত হওয়ায় পর ভিকটিমের মা বাদী হয়ে নারায়ণগঞ্জ ফতুল্লা থানায় অজ্ঞাতনামা আসামিবিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

১৬ মার্চ ফতুল্লা থানাধীন পাগলা রেলস্টেশন এলাকা থেকে মামলার অন্যতম প্রধান আসামি মোঃ বুলবুল শেখ রাকিবকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব। রাকিব বাগেরহাটের কচুয়া বারদাড়িয়া এলাকার মৃত মোহাম্মদ আলী শেখের ছেলে।

পরবর্তীতে আসামির দেয়া তথ্য মতে ফতুল্লা থানাধীন পূর্ব শাহী মহল্লা এলাকায় অন্য আসামি মোঃ সানাউল্লাহ (৫২) এর সাইফুল সাইকেল হাউজ দোকান থেকে ভিকটিমের চালিত মিশুক গাড়িটির বিভিন্ন খন্ডিত অংশ বিশেষ (মিশুকের স্টিলের বডি ০১টি, রিংসহ টায়ার ও টিউব ফিটিং চাকা ০৩ টি, ডিফারেন্সিয়াল ০১ টি, কন্ট্রোল বক্স ০১টি, মটর ০১টি, সকেট জাম্পার ০১ সেট, হ্যান্ডেল ০১টি, পাউডার ব্যাটারী ০১টি, কাঠের সীট ০১টি, কাঠের হেলনা সাঁট ০১টি এবং ক্যানোপি ০১টি) উদ্ধার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃত আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, আসামি রাকিব এবং উক্ত মামলার অপর আসামি মোঃ পারভেজ (২৩) দুইজনই ফতুল্লা থানাধীন মাসদাইর এলাকায় এ্যাডিশন অব ফ্যাশন, চৌধুরী কমপ্লেক্স মাসদাইর গার্মেন্টস কোম্পানীতে চাকুরি করত। গত ১২ মার্চ কোম্পানীতে চুরির দায়ে তাদেরকে কোন প্রকার বেতন-ভাতা না দিয়ে কোম্পানী হতে বহিস্কার করা হয়। পরবর্তীতে তারা পরিকল্পনা করে তাদের একই এলাকার পরিচিত মিশুর চালক ভিকটিম মোঃ রাজু খানকে (১৯) ফতুল্লা থানাধীন পাগলা এলাকায় যাওয়ার উদ্দেশ্যে ভাড়া ঠিক করে। তারা মিশুকে চড়ে নারায়ণগঞ্জ জেলার ফতুল্লা থানাধীন পাগলা এলাকার বিভিন্ন স্থানে ঘুরে সময় ক্ষেপন করে এবং নির্জন স্থান খোঁজ করতে থাকে। পরবর্তীতে রাত সাড়ে ১২ টায় পিলকুনি বড় কবরস্থান সংলগ্ন ঈদগাহ মাঠের পাশে নিয়ে গিয়ে অন্যতম প্রধান আসামি মোঃ বুলবুল শেখ শ্বাসরোধ করে হত্যার উদ্দেশ্যে তার পরিহিত প্যান্টের বেল্ট খুলে অপর আসামি পারভেজসহ ভিকটিমের গলায় পেচিয়ে ভিকটিমকে মাটিতে ফেলে দেয়।

পরবর্তীতে পারভেজ ভিকটিমের গলায় পা দিয়ে চেপে ধরে মৃত্যু নিশ্চিত করে।মৃত্যু নিশ্চিত হলে দুইজনই মিলে ভিকটিমকে পাশের ডোবাতে ফেলে দেয় এবং তারা ভিকটিমের ভাড়াকৃত মিশুক গাড়িটি চালিয়ে ঘটনাস্থল থেকে অন্যত্র নিয়ে গিয়ে গাড়ির রং পরিবর্তন করে নারায়ণগঞ্জ জেলার ফতুল্লা থানাধীন পূর্ব শাহী মহল্লা এলাকায় একটি পুরাতন অটোরিক্সা ক্রয়-বিক্রয়ের দোকানে (সাইফুল সাইকেল হাউজ) আসামি মোঃ সানাউল্লাহের নিকট ২৮ হাজার টাকায় বিক্রি করে। বিক্রিত টাকা রাকিব এবং পারভেজ নিজেদের ভিতর ভাগাভাগি করে নেয়। 

অনুসন্ধানে আরও জানা যায় যে, আসামি মোঃ সানাউল্লাহ চোরাই অটো ক্রয়-বিক্রয়ের চক্রের সাথে সংশ্লিষ্ট এবং সে চোরাই অটো ক্রয় করে রং পরিবর্তন করার পর বিভিন্ন অংশে ভেঙ্গে বিক্রয় করে থাকে।