রোববার, ০৩ মার্চ ২০২৪

|

ফাল্গুন ১৯ ১৪৩০

Advertisement
Narayanganj Post :: নারায়ণগঞ্জ পোস্ট

তারেকের নির্দেশ উপেক্ষা নারায়ণগঞ্জ বিএনপির, ব্যর্থ নেতাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থার দাবি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

প্রকাশিত: ১৯:০১, ৬ ডিসেম্বর ২০২৩

তারেকের নির্দেশ উপেক্ষা নারায়ণগঞ্জ বিএনপির, ব্যর্থ নেতাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থার দাবি

ফাইল ছবি

নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর বিএনপি রাজপথে নিজেদের অবস্থান প্রমানে ব্যর্থ হয়েছেন। বার বার দলীয় প্রধান ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশনা উপেক্ষা করে রাজপথ থেকে দূরে রেখে নিজেদের সক্রিয় প্রমানে নানা অজুহাত দিচ্ছেন তারা। 

জানা যায়, ২৮ অক্টোবর দলীয় সমাবেশের পর থেকে নারায়ণগঞ্জে রাজপথে নিজেদের কোন অবস্থান নেই বিএনপির। জেলা ও মহানগর বিএনপির নেতারা রাজপথে নামতে ব্যর্থ হয়েছেন। এর মধ্যে মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট আবু আল ইউসুফ খান টিপু রাজপথে সক্রিয় থাকলেও তিনি গ্রেপ্তার হবার পর শহরে মহানগর বিএনপির আর কোন দৃশ্যমান মিছিল হয়নি।

দলীয় একাধিক সুত্র জানায়, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক গোলাম ফারুক খোকন দীর্ঘদিন থেকেই নিখোঁজ। তাকে দলীয় নেতাকর্মীরা খুঁজে পায়না। দলের নেতাকর্মীদের কোন দিক নির্দেশনাও দেননা তিনি। তবে কেন্দ্রের সাথে যোগাযোগ রেখে স্কাইপ বৈঠকে অংশ নিয়ে সক্রিয় থাকা ও না থাকার নানা অজুহাত তোলেন এ নেতা। এসব বিষয়ে কেন্দ্রীয় নেতারা তার নিস্ক্রিয়তা বুঝতে পারলেও বর্তমান সময়ে তাকে সক্রিয় হতে ও নেতাকর্মীদের সক্রিয় করতে নির্দেশ দিয়ে যাচ্ছেন। তবে এ নির্দেশনা শুধু শ্রবনের মধ্যেই সীমাবদ্ধ রাখছেন তিনি। নেতাকর্মীদের থেকে একেবারে বিচ্ছিন্ন এ নেতা রাজপথে নিজেও নামেন না এবং কাউকে নামতেই নির্দেশনা দিচ্ছেন না।

জেলা বিএনপির সভাপতি গিয়াসউদ্দিন মুঠোফোনে সবার সাথে যোগাযোগ করে নির্দেশনা দেয়ার কথা জানা গেলেও তাকে বার তার নেতৃত্বে থাকা সিদ্ধিরগঞ্জ ফতুল্লা বিএনপির নেতাকর্মীদের রাজপথে তেমন দেখা যায়নি। একটা বড় মিছিল কেন্দ্রে দেখাতে ব্যর্থ হয়েছেন তারা। 

একই অবস্থা মহানগর বিএনপির আহবায়ক অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খানের। তার বিরুদ্ধেও রয়েছে সক্রিয়তার অভিযোগ। তিনি বা তার অনুসারিদের একটি বড় মিছিল নারায়ণগঞ্জে ১০ দফা হরতালের একদিনও দেখা যায়নি।

দলীয় সুত্রমতে, জেলা বিএনপি ও মহানগর বিএনপির নেতাদের সাথে সম্প্রতি অনলাইন বৈঠকে কেন্দ্র বার বার সক্রিয় হতে নির্দেশনা দিলেও কেন্দ্রের নির্দেশনা উপেক্ষা করে নিষ্ক্রিয় রয়েছেন তারা। কেন্দ্র থেকে বার বার সক্রিয় হতে বললেও তাদের নিস্ক্রিয়তা তাদের ব্যর্থ হিসেবেই কেন্দ্র অভিহিত করছেন। 

এ ব্যাপারে কথা বলতে জেলা ও মহানগর বিএনপির দায়িত্বশীল নেতাদের কারো মুঠোফোনে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।