বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪

|

জ্যৈষ্ঠ ২৮ ১৪৩১

Advertisement
Narayanganj Post :: নারায়ণগঞ্জ পোস্ট

প্রধানমন্ত্রী সাহস দিয়ে রেখেছেন, আমাদের মুখে হাসি আছে : সেলিম ওসমান

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

প্রকাশিত: ১৪:০২, ৯ জুন ২০২৪

প্রধানমন্ত্রী সাহস দিয়ে রেখেছেন, আমাদের মুখে হাসি আছে : সেলিম ওসমান

একেএম সেলিম ওসমান

নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য একেএম সেলিম ওসমান বলেছেন, এই উপজেলা পরিষদে হয়ত আমার আসা হবে না। আমরা মুরুব্বিদের হারিয়েছি। আজ একটা রাজাকারকে এই বন্দরে আমরা স্থান দিয়েছি। ইতিহাস কথা বলবে। আমি কী জানতে পারি মসজিদে এত টাকা কোথা থেকে আসল। হারামের টাকায় মসজিদ আর করবেন না। মসজিদে বসে আপনারা অপ রাজনীতি করবেন না। মসজিদে বসে ঈমানের কথা বলবেন। মসজিদে বসা মানে আল্লাহর ইবাদত করা৷

রোববার (৯ জুন) নারায়ণগঞ্জের বন্দরে ৫৬০ মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র শীর্ষক প্রকল্পের আওতায়ধীন বন্দর উপজেলা মডেল মসজিদের চিত্তি প্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে একথা বলেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, আমাদের অবস্থা খুব ভাল না। আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানাই। তিনি আমাদের সাহস দিয়ে রেখেছে, তাই আমাদের মুখে হাসি আছে। গরীব মানুষদের জন্য যত রকমের ব্যাবস্থা আছে তিনি গ্রহণ করেছেন। টিসিবির মাধ্যমে পন্য দেয়া হচ্ছে।

তিনি বলেন, এই বন্দরে যে উন্নয়ন হয়েছে এটা দেখতে পারতেন না। এত সোজা না। আমরা কাকে এখানে বসিয়েছি। একুশটা বছর আমাদের জ্বালিয়ে গেছে। আমি খবর পেয়েছি, দশ তারিখে উনি শপথ নিলেন। তার জন্য বিভিন্ন জায়গা থেকে টাকা পাঠানো হচ্ছে। সে যদি পাশ করে থাকে আল্লাহ যাকে ক্ষমতায় রেখেছেন ক্ষমতায় রাখবেন।

তিনি বলেন, মহারাজের সন্তান লাঙ্গলবন্দে বালুর ব্যাবসা করে। কেন লাঙ্গলবন্দের মাটিতে বালুর ব্যাবসা হয়। আমি আজ সকলের সামনে আপনাদের কাছে জানতে চাই। আপনাদের স্বার্থ কী। আপনারা সুশিক্ষিত মানুষ। আপনারা ঈমানের সাথে দায়িত্ব পালন করবেন। ভোট চুরি, জালিয়াতি চলবে না। ঘরের ভেতরে ডাকাতি, সময় কথা বলবে।

এটা শেখ হাসিনার সরকার। এ দেশ বঙ্গবন্ধুর দেশ। এদেশে রাজাকারের চিহ্ন থাকবে না। আমি যুদ্ধ করেছি। শরীর বুড়ো হলেও মন বুড়ো হবে না। পাকিস্তান বানানের পাঁয়তারা চলবে না। আমার ভবিষ্যত প্রজন্ম এদের রুখে দেবে।

তিনি আরো বলেন, কিছুক্ষণ আগে আমার পেছনে একটা বেইমান এসেছিল। আমি বলেছি ইমান না থাকলে আমার সাথে থাকবি না। এসকল বেইমানরা কখনও আমার প্রশ্রয়ে থাকতে পারবে না। এখানে টাকার খেলা হয়েছে। এত টাকা আপনার! এত মসজিদে মসজিদে টাকা, সর্বনাশ। আমরা একটা সিদ্ধান্ত নেয়ার পরেও আপনি টাকার জোরে নির্বাচন করেছেন। টাকার এত জোর। হারামের পয়সা ব্যারামে খায় এটা মনে রাখবেন। আমি হারাম খাই না খেতেও দেই না।