বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪

|

জ্যৈষ্ঠ ২৮ ১৪৩১

Advertisement
Narayanganj Post :: নারায়ণগঞ্জ পোস্ট

ফতুল্লায় জিয়াউর রহমানের শাহাদাৎবার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

প্রকাশিত: ০০:১০, ১১ জুন ২০২৪

ফতুল্লায় জিয়াউর রহমানের শাহাদাৎবার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া

মিলাদ মাহফিল

ফতুল্লা থানা বিএনপির উদ্দেগ্যে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ রাস্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৪৩ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া  মিলাদ মাহফিল  অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার  (১০জুন) বিকেলে ফতুল্লা থানা বিএনপির  উদ্দেগ্যে ফতুল্লা বাজার এলাকায় এই দোয়া ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়। 

ফতুল্লা থানা বিএনপির সহ-সভাপতি এডঃ এস,এম আলমগীর হোসেনের সভাপত্বিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ফতুল্লা থানা বিএনপির সভাপতি শহিদুল ইসলাম টিটু।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে শহিদুল ইসলাম টিটু  বলেন,বেগম কালেদা জিয়া অসুস্থবস্থায়  মিথ্যা মামলায় দীর্ঘদিন যাবৎ সরকারের কারাগারে আটক রয়েছেন। তারেক জিয়া মিথ্যা মামলায় দেশের বাইরে রয়েছেন। দলের ভিতর একটি কুচক্রি মহল রয়েছে তাদের কে আমরা বলবো আওয়ামী লীগের দালাল,এজেন্ট। তিনি বলেন আসুন আমরা সকলে মিলেমিশে ফতুল্লা থানা বিএনপি কে শক্তিশালী করে তুলি। ৭ ই জানুয়ারী নির্বাচন বয়কটের আন্দোলনে তারা কোথাও ছিলোনা। একটি ভিডিও ফুটেজ ও দেখাতে পারবেনা। কমিটিতে যারা আছেন তারা বলেন আমরা বিএনপি নেতা। আমরা ও তা মেনে নিলাম।তারেক জিয়া বলেছেন সকলকে মিলেমিশে রাজনীতি করতে। তাই আসুন সকলে মিলেমিশে রাজনীতি করে নারায়নগঞ্জে আন্দোলন গড়ে তুলি। তারেক জিয়া কে ফিরিয়ে আনি। 

পিছনের দরজা দিয়ে এ সরকাট ক্ষমতায় এসেছে অতিদ্রুত এ সরকারের পতন হবে। সরকার জনসমর্থন হারিয়ে ফেলেছে। তারা দেশের বাইরে অর্থ পাচার করে দেশক তলাবিহীন ঝুড়িতে পরিনত করেছে।ব্যাংকগুলোক দেউলিয়া করে ফেলেছে। এ সরকারের পতন না হওয়া পর্যন্ত আমরা আন্দোলন চালিয়ে যাবে। তারেক জিয়া যখনই আন্দোলনের ডাক দিবে আমরা ফতুল্লা থানা বিএনপি  সর্ব শক্তি নিয়ো সেদিনই রাজপথে ঝাপিয়ে পরবো।

প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রিয়াদ মোহাম্মদ চৌধূরী বলেন জিয়া পরিবার দেশ ও দেশের মানুষের জন্য কাজ সর্বচ্চো কাজ করে যাচ্ছেন। প্রয়াত প্রেসিডেন্ট বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান দেশের জন্য দেশের মানুষের জন্য কাজ করতে গিয়ে ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে মারা যান। বেগম খালেদা জিয়া  অন্যায়ের সাথে আপোষ না করে দেশের মানুষের জন্য কথা বলতে গিয়ে আজ সে কারাবন্দী।তারেক জিয়া দেশ ও জনগনের জন্য সর্বচ্চো ত্যাগ স্বীকার করে কাজ করপ যাচ্ছে। সে ইচ্ছে করলে ভোগ বিলাসী জীবন যাপন করতে পারে। কিন্ত তিনি তা না করে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে দেশের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। ইনশ্ আল্লাহ তার নেতৃত্বেই এ দেশে গণতন্ত্র ফিরে আসবে।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ফতুল্লা থানা বিএনপির সহ-সভাপতি মোঃ নাজির আহম্মেদ নাজির,বক্তাবলী ইউনিয়ন বিএনপির আহবায়ক সুমন আকবর,কুতুবপুর ইউনিয়ন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নজরুল ইসলাম মাতবর, কাশিপুর ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আরিফ মন্ডল, এনায়েত নগর ইউনিয়ন বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক জহিরুল ইসলাম চৌধুরী জহির,ফতুল্লা থানা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক জাকির হোসেন রবিন,ফতুল্লা থানা যুবদলের ভারপ্রাপ্ত আহবায়ক আব্দুল খালেক টিপু,ফতুল্লা থানা শ্রমিক দলের আহবায়ক শাহালম পাটোয়ারী।

এছাড়া অন্যানদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন কাশিপুর ইউনিয়ন বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ডালিম শিকদার,ফতুল্লা থানা ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক সাগর সিদ্দিকী,ফতুল্লা   থানা বিএনপির সহ-সাধারন সম্পাদক আনিছুর রহমান আনিছ, সহ-সাধারন সম্পাদক লাভলু,  ফতুল্লা থানা শ্রমিক দলের সদস্য সচিব আল আমিন,এনায়েত নগর ইউনিয়ন বিএনপির সহ-সভাপতি আমিনুল হাসান লিটন, সহ- প্রচার সম্পাদক মিলন ঢালী,ফতুল্লা ইউনিয়ন ৪ নং ওয়ার্ড বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি দুলাল আহম্মেদ,সাধারন সম্পাদক জুয়েল চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল মান্নান, ২ নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি সভাপতি অরুন মিয়া,সাধারন সম্পাদক মামুন মিয়া,১ নং ওয়ার্ড বিএনপির সাধারন সম্পাদক রাসেল মিয়া, ফতুল্লা থানা স্বেচ্ছা সেবক দলের যুগ্ম আহবায়ক মামুন হোসাইন,ফতুল্লা ইউনিয়ন শ্রমিক দলের সদস্য সচিব আমির হোসেন মোল্লা, যুগ্ম আহবয়াক সোহাগ চৌধুরী, কুতুবপুর ইউনিয়ন যুবদলের সভাপতি মাসুম রাজ, ফতুল্লা থানা  যুবদল নেতা মিঠু, সৈকত, রিপন, রুবেল চৌধুরী,শাহিন, আক্তার,স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা রাহাত চৌধুরী,  সেলিম,নাঈম প্রমূখ।