বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

|

ফাল্গুন ৯ ১৪৩০

Advertisement
Narayanganj Post :: নারায়ণগঞ্জ পোস্ট

বক্তাবলীতে জয়নাল মন্ডল হত্যার আসামিদের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

প্রকাশিত: ১৫:৪১, ৬ ডিসেম্বর ২০২৩

বক্তাবলীতে জয়নাল মন্ডল হত্যার আসামিদের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত

মানববন্ধন

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার বক্তাবলী ইউনিয়নের আকবর নগর ও জাজিরার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী জয়নাল মন্ডল হত্যার প্রধান আসামি সামেদ আলী সহ সকল আসামিদের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে আকবরনগর সহ বক্তাবলী ইউনিয়ন বাসী।

বুধবার(৬ নভেম্বর) সকাল ১১ টায় আকবর নগর গ্রামে বিশিষ্ট ব্যবসায়ী হাজী আব্দুর রহিমের সভাপতিত্বে মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধন কর্মসূচিতে প্রায় দুই শতাধিক মানুষ অংশগ্রহণ করে।

উক্ত মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন, হাজী মোহাম্মদ জাকির হোসেন, দেলোয়ার হোসেন মেসি, ফুলু মাদবর, দিল মোহাম্মদ দিলু, মোতালিব, ইয়ার আলী, মোহাম্মদ জালাল, মোহাম্মদ আলমগীর হোসেন, মোঃ মন্নাফ,কবির হোসেন, মোহাম্মদ নিজাম,মোঃ জুয়েল, বাদল বেপারী প্রমুখ।

বক্তারা বলেন,আকবর নগর সহ বক্তাবলীর মূর্তিমান আতঙ্ক হাজী সামেদ আলী ও তার পুত্রদের ভয়ে এলাকাবাসী আতঙ্কিত অবস্থায় দিনযাপন করতো।

গত এক বছর যাবত সামেদ আলীর পরিবার সহ তার সহযোগীরা এলাকা ছাড়া  হওয়ায় বর্তমানে এলাকায় শান্তি বিরাজ করছে।

গত এক বছর এলাকায় কোন বিচার সালিশ ও থানায় মামলা মোকাদ্দমা হয় নাই। এতে প্রমাণ হয় সামেদ আলী এলাকায় থাকলে অশান্তি বিরাজ করে না থাকলে শান্তি বহাল থাকে।

বক্তারা আরো বলেন, সামেদ আলীর বউ এসপি ও ডিসি অফিসের সামনে মানববন্ধন করে বলে আমরা এলাকায় গেলে খুনাখুনি হবে হলে হোক। আমরা এলাকায় যাবো। সামেদ আলী আওয়ামী লীগের নাম ব্যবহার করে গত ৪০ বছর চাঁদাবাজি, খুন, মারামারি, লুটপাট,অগ্নিসংযোগ, তার ছেলেরা মাদক ব্যবসা করে কোটি কোটি টাকার মালিক হয়ে গেছে এবং নানান অপকর্ম করে আসছে।
  
বর্তমানে সামেদ আলী বাহিনী বক্তাবলীতে না থাকায় মানুষ অনেক সুখে শান্তিতে আছে। সামেদ আলী বাহিনী যেন আর কখনো এলাকায় ফিরতে না পারে সেজন্য পুলিশ প্রশাসনের প্রতি জোর দাবি জানান। সামেদ আলী বাহিনীর হাতে নির্মমভাবে নিহত ব্যবসায়ী জয়নাল মন্ডল হত্যার বিচার দ্রুত সম্পূর্ণ ও আসামিদের ফাঁসির দাবি জানান।  

পরে একটি বিক্ষোভ মিছিল বিভিন্ন এলাকা প্রদক্ষিণ করে সামেদ আলী ও তার বাহিনীর সদস্যদের বিচার দাবি করেন।