মঙ্গলবার, ২১ মার্চ ২০২৩

|

চৈত্র ৫ ১৪২৯

Advertisement
Narayanganj Post :: নারায়ণগঞ্জ পোস্ট

নারায়ণগঞ্জ ওসমানী সাম্রাজ্য কায়েম : আনোয়ার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

প্রকাশিত: ২৩:০৪, ১৮ মার্চ ২০২৩

নারায়ণগঞ্জ ওসমানী সাম্রাজ্য কায়েম : আনোয়ার

ফাইল ছবি

নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন বলেছেন, নারায়ণগঞ্জ ওসমানী সাম্রাজ্য কায়েম হয়ে গেছে। প্রকাশ্যে দিবালোকে বন্দর ফরাজিকান্দায় গুলি ছুড়ে সন্ত্রাসী তান্ডব জ¦লন্ত প্রমাণ। এরপরও প্রশাসন তাদের বিরুদ্ধে এ্যাকশন নিতে সাহসও পায় না। তাদের পক্ষে থাকলে মুক্তিযোদ্ধা, আর না থাকলে রাজাকার। আওয়ামীলীগ থেকে যারা বেশি পেয়েছে, তারা এখন নৌকা ডুবিয়ে দিতে চেষ্টা করে যাচ্ছে। লাঙলের যাচাই আর নৌকা ডুবাতে দিবো না। নারায়ণগঞ্জ ক্লাবে ব্যালট বাক্স নিয়ে যাওয়া ব্যক্তিরা আজ নৌকা ঠেকাতে কাজ করে। এ সময় তিনি আগামী নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জের ৫টি আসনে নৌকার প্রার্থী দাবি করেন শেখ হাসিনার কাছে।

বিএনপির উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, সবাইকে রাজনৈতিক শিষ্টাচার মেনে বক্তব্য দেয়ার আহবান জানাই। আজকে শান্তি নষ্ট করে উস্কানিমূলক বক্তব্য দিলে কোন বাপের বেটা আসলেও তাদের রেহাই নাই।

শনিবার (১৮ মার্চ) বিকেলে শহরের ২ নং রেলগেট এলাকায় অবস্থিত জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগ কার্যালের মূল ফটকে মহানগর আওয়ামীলীগ আয়োজিত শান্তির সমাবেশে একথা বলেন তিনি।

আনোয়ার আরো বলেন, আজ আওয়ামীলীগ ঐক্যবদ্ধ। এক সময় আমরা তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে আন্দোলন করেছিলাম। তৎকালীন নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া বলেছিল নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকার বলতে কোন কিছু নাই। এক পাগল আর ছাগল নাকি নিরপেক্ষ। শিশু আর পাগল নাকি আজ নিরপেক্ষ। তাই হয়ে থাকলে আজ কেন খালেদা জিয়ার কর্মীরা তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি করছে। সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হবার আহবান জানাচ্ছি। আগামী নির্বাচনে আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে অংশগ্রহণ করবো। শেখ হাসিনার প্রতিনিধির পক্ষে আমরা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবো।

নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এস এম আহসান হাবিবের সঞ্চালয়নায় উপস্থিত ছিলেন, মহানগরের সহ-সভাপতি শেখ হায়দার আলী পুতুল, নূরুল ইসলাম, জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, বন্দর থানা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আবেদ হোসেন, প্রচার সম্পাদক অ্যাডভোকেট হাবিবুর পলু, কার্যকরি সদস্য মনিরুজ্জামান মনির, সাখাওয়াত হোসেন সুমন, শামীম খা, তৌহিদ হোসেন প্রমুখ।